একটি বিষয় আমায় খুব কষ্ট দিয়েছে: মেয়র নাছির

মনোনয়ন না পাওয়ার জন্য নিজের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের মিথ্যাচার, অপরাজনীতি, অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন বলে দায়ী করলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নবঞ্চিত ও সিটি মেয়র নাছির উদ্দীন। মনোনয়ন না পাওয়ায় হতাশ নন জানিয়ে তিনি বলেছেন, একটি বিষয় তাকে কষ্ট দিয়েছে, ব্যথা দিয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

নাছির বলেন, মেয়র পদ না পেয়ে আমি কোনোভাবেই হতাশ, বিক্ষুব্ধ বা নিরাশ নই। তবে একটি বিষয় আমাকে কষ্ট দিয়েছে। যে সংগঠনের জন্য জীবন-যৌবন দিয়েছি, তারাই আমাকে বঙ্গবন্ধুর খুনির দোসর বানাতে ওঠেপড়ে লেগেছে। অথচ আমি প্রথম পরিকল্পনা করে বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল (অব) রশিদের সভায় হামলা চালিয়েছিলাম। ফ্রিডম পার্টির নেতাকর্মীদের খুঁজে বের করে চট্টগ্রাম থেকে তাড়িয়েছিলাম। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ‘৭৬ সালের জানুয়ারি মাসে সর্বপ্রথম আমরা ৫-৬ জন মিলে মিছিল করেছিলাম।

প্রসঙ্গত চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণের পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আওয়ামী লীগের কর্মীরা একটি ছবি প্রকাশ করেন ফেসবুকে। এই ছবি প্রকাশ করে প্রচার চালানো হয় যে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামির পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মেয়র নাছিরের দীর্ঘদিন ব্যবসায়িক ও ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে। মেয়র নাছির মনে করেন, তাকে মনোনয়ন না দেয়ার পেছনে এসব অপপ্রচার কাজ করেছে।

মেয়র নাছির দু:খ করে বলেন, মনে রাখতে হবে– আমরা অনেক আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তৈরি হয়েছি। আরেকজন আ জ ম নাছির তৈরি করতে অনেক বছর সময় লাগবে।

‘মেয়রের পদ বড় না, রাজনীতিটাই বড়। কেউ যদি বলত তিনি মেয়র হতে চান, আমি ছেড়ে দিতাম। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে দলই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শতভাগ মিথ্যাকে প্রতিষ্ঠিত করার কোনো মানে হয়?’-যোগ করেন নাছির।

উল্লেখ্য, চসিক নির্বাচনে এবারও মেয়র পদে মনোনয়ন চেয়েছিলেন বর্তমান সিটি মেয়র নাছির। আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন না দিয়ে দিয়েছেন নগর কমিটির যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিমকে।