ফেসবুকে ফ্রেন্ডশীপ করার পর ব্ল্যাকমেইল করে হাতিয়ে নিতো লাখ লাখ টাকা!

যশোরে চাঁদার এক লাখ টাকাসহ দুই চাঁদাবাজকে আটক করেছে পুলিশ। ফেসবুকে ফ্রেন্ডশীপ বানিয়ে অশ্লীল ছবি তৈরি করে ব্ল্যাকমেইল না করার জন্য তারা ৬ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছিল। এছাড়া পুলিশ ৩ কেজি গাঁজাসহ আরো এক যুবককে আটক করেছে।

আটককৃতরা হলো, নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলার মিনকীকান্দী গ্রামের মুনছুর আলীর ছেলে বর্তমানে যশোর সদর উপজেলার কলাবাগান ক্ষিতিবদিয়ার বাসিন্দা মোহাম্মদ আলী এবং নড়াইললের সদর উপজেলার কামারপ্রতাপ গ্রামের ইকবাল হোসেনের ছেলে ইব্রাহিম এবং বেনাপোল পোর্ট থানার হুদা গ্রামের আজিবর রহমানের ছেলে আনিসুর রহমান। মঙ্গলবার দুপুরে যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেসব্রিফিংএ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) তৌহিদুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি উল্লেখ করেন,যশোর উপশহর এলাকার মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে মাহবুবুল হক যশোর কোতয়ালি থানায় অভিযোগ করে বলেন, তার মেয়ে মহাসিন হক (২০) উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে করে উচ্চতর শিক্ষাগ্রহণের জন্য চীন দেশে অবস্থান করে। দেশে পড়াশোনা করার সময় তার ফেসবুকে মোহাম্মদ আলীর সাথে ফেন্ডশীপ হয়। তারপর তার মেয়ের আইডি থেকে ছবি সংগ্রহ করে তিন বছর আগে থেকে বিভিন্ন ভাবে ব্ল্যাকমেইল করে আসছে।

এসময় তাকে বিভিন্ন ভাবে অনুরোধ করলেও সে তা না শুনে ১ বছর আগ থেকে চাঁদাদাবী করে আসছে। এ চাঁদার টাকা না দেয়ায় তার মেয়ের ছবি অশ্লীল আকারে করে ফেসবুকসহ বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে আসছে। এরপর ১২ ফেব্রæয়ারি মোবাইলের মাধ্যমে মাহমুদুল হকের মেয়ের নিকট ৬ লাখ চাঁদা দাবি করে। এ টাকা না দিলে তার বাবা মাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। বিষয়টি মেয়ের কাছ থেকে জানতে পেরে তিনি মোহাম্মদ আলীকে এসব না করার অনুরোধ করেন। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ২০ জানুয়ারি যশোর শহরের খাজুরা বাসস্টান্ডে এসে মাহাবুবুল হককে ভয়ভীতি দেখিয়ে ফের চাঁদা দাবি করে।

বিষয়টি তিনি যশোর কোতয়ালি থানার পুলিশকে জানায়। কোতয়ালি থানার পুলিশ ১৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় যশোর ঝিনাইদহ সড়কের বোর্ড ক্লাবের পাকা রাস্তার রেলক্রসিং এর সামনে মেয়ের পিতা আহম্মদ আলী চাঁদার ৬ লাখ টাকার মধ্যে ১ লাখ টাকা দেয়। আগে থেকে কোতয়ালি থানার পুলিশ ওৎ পেতে থাকায় মোহাম্মদ আলী ও ইব্রাহিমকে হাতেনাতে আটক করে। এসময় চাঁদার ১ লাখ টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন জব্দ করে।

যশোর ডিবি পুলিশ সোমবার বিকেলে যশোর সদর উপজেলার রাজারহাট মোল্যাপাড়ার তফসিরের বাড়ি থেকে আনিসুর রহমানকে আটক করে। এসময় তার কাজ থেকে কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। পৃথক ঘটনায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে যশোর ডিবি পুলিশের ওসি মারুফ আহম্মেদ, কোতয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানসহ অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।