নিজেই অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ডু প্লেসি

অধিনায়কত্ব ছাড়লেন ফাফ ডু প্লেসি। ফাইল ছবি
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে ফাফ ডু প্লেসিকে বিশ্রাম দিয়েছিল ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ)। বিশ্রাম নিতে নিতেই সিদ্ধান্তটা নিয়ে ফেললেন ডু প্লেসি। আজ এক বিবৃতিতে তিনি ঘোষণা করলেন, অধিনায়কত্ব আর নয়। তিন সংস্করণের ক্রিকেটেই দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়কের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন ডু প্লেসি। তবে সদ্য সাবেক অধিনায়ক জানিয়েছেন, দলের সাধারণ এক সদস্য হিসেবেই খেলা চালিয়ে যাবেন।

বয়স হয়েছে ৩৫। ডু প্লেসির উপলব্ধি সময় এসেছে নতুন প্রজন্মের হাতে নেতৃত্ব তুলে দেওয়ার, ‘নতুন নেতৃত্ব ও একঝাঁক তরুণ খেলোয়াড় নিয়ে দলটা নতুন এক লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে। আমার মনে হয়েছে, সব সংস্করণের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিলে সেটি দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি উপকার করবে।’

তবে সিদ্ধান্ত নেওয়াটা যে সহজ ছিল না, সেটি বলতেও ভোলেননি ডু প্লেসি, ‘সিদ্ধান্ত নেওয়াটা খুবই কঠিন ছিল। তবে আমি কুইন্টনকে (ডি কক) সব ধরনের সাহায্য করে যাব।’

১১২টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে নেতৃত্ব দেওয়া ডু প্লেসি অবশ্য বেশ চাপেই ছিলেন। ২০১৯ বিশ্বকাপে বাজে খেলেছে তাঁর দল, বিদায় নিয়েছে প্রথম রাউন্ড থেকে। এরপর ভারত সফরে ও দেশে ইংল্যান্ডের কাছে টেস্ট সিরিজ হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্যাট হাতে ডি ককের ফর্মও পড়তির দিকে ছিল। টেস্টে শেষ ১৪ ইনিংসে ২০.৯২ গড় দলে তাঁর জায়গা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দিয়েছিল।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সীমিত ওভারের সিরিজে নেতৃত্ব দেওয়া কুইন্টন ডি কককেই সম্ভবত তিন সংস্করণের অধিনায়ক করা হবে। দলটির কোচ মার্ক বাউচার সরাসরিই ডি ককের অধিনায়কত্বের প্রশংসা করেছেন।

আগামী শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু করবে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেই সিরিজের দল আজই ঘোষণা করবে সিএসএ। সেই দলে ডু প্লেসি জায়গা পান কি না, দেখার আছে সেটিও।