নোয়াখালীর দ্বীপ ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের না পাঠিয়ে রিসোর্ট বানানো যেতে পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন নোয়াখালীর দ্বীপ ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের না পাঠিয়ে সেখানে একটি রিসোর্ট কিংবা গৃহহীন লোকদের থাকার ব্যবস্থা করার সুপারিশ করেছেন।

রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন বলে ইউএনবি’র একটি খবরে বলা হয়।

ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, “ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের না পাঠিয়ে আমরা বিকল্প কোনও ব্যবস্থার ব্যাপারে চিন্তা করতে পারি। এটি আমার চিন্তা। সরকারিভাবে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। ভাসানচর দেখে আমার খুব পছন্দ হয়েছে। ভাবলাম খামোখা অন্য লোকদের এখানে দেবো কেন।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “ভাসানচরে বিরাট লেক আছে। অত্যন্ত সুন্দর একটি জায়গা এই দ্বীপটি। সেখানে খুব সুন্দর রিসোর্ট তৈরি হতে পারে। শুধু রোহিঙ্গা পাঠানোর বিষয়টি না ভেবে আমরা বিকল্প চিন্তা করতে পারি।”

তিনি আরও বলেন, “ভাসানচরে অনেক অর্থনৈতিক কার্যক্রমের সুযোগ রয়েছে। আমাদের দেশে অনেক গৃহহীন মানুষ আছে। রোহিঙ্গাদের না পাঠিয়ে সেখানে গৃহহীন বাংলাদেশিদের পাঠানোর জন্য আমি সংশ্লিষ্টদের জানাবো।”

উল্লেখ্য, এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, সংশ্লিষ্টদের আপত্তি থাকলে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে পাঠানো হবে না।