পর্দার আড়ালে কিছু হচ্ছে না, সবই ওপেন সিক্রেট: সেতুমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করতে হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘প্যারোল নিয়ে পর্দার আড়ালে কিছু হচ্ছে না। মির্জা ফখরুল ইসলামের ফোন রং (ভুল) নয়, তিনি ঠিক করেছেন।’

আজ রোববার সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি সরকারের বিষয় নয় জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্যারোল চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করতে হবে। পরে আবেদনের যৌক্তিকতা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তির পথের শেষ নেই। প্যারোল, মানবিক আবেদন বা আন্দোলন কোন দিকে মুক্তি চায় তা বোঝা যাচ্ছে না। মির্জা ফখরুল ফোন করে মানবিক কারণে মুক্তি চেয়েছেন।’

এ সময় মন্ত্রিসভার রদবদল প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় সম্প্রতি একটা রদবদল হয়েছে, তাই খুব তাড়াতাড়ি মন্ত্রিসভায় বিন্যাস পুনর্বিন্যাস, সম্প্রসারণ-এটা হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম।’

‘যেহেতু রদবদলটা এই মুহূর্তে হয়েছে পারফরম্যান্স বা গতির জন্য, সেখানে নতুন করে মেজর কোনো পরিবর্তন বা সম্প্রসারণ হবে না। এটা হয়তো আরও পরে হতে পারে।’

মন্ত্রিসভায় রদবদলের কারণ ব্যাখ্যায় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কাজের গতির জন্য, কাজের সুবিধার জন্য করা হয়েছে। হয়তো আমি যে স্থানে আছি প্রধানমন্ত্রী মনে করছেন আমাকে অন্য আরেকটা স্থানে দিলে পারফরম্যান্স আরও ভালো হবে। এটা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার।’

চট্টগ্রামে মেয়র পদে নতুন প্রার্থী দেওয়া প্রসঙ্গেও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এটা পরিবর্তন বা কোনো বলয় ভাঙা নয়। রাজনৈতিক ত্যাগের ফল হিসেবে প্রার্থী বাছাই করা হয়েছে।’