মির্জাগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ০১ জন সদস্য আটক করেছে র্যাব।

১। র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অন্যান্য অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যে কোন ধরণের অপরাধী, অপহরণ, মাদক উদ্ধার, অপহ¦ত ভিকটিম উদ্ধারসহ দেশের শীর্ষ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, এবং প্রশ্নপত্র ফাঁস কারী চক্রসহ বিভিন্ন প্রতারক চক্রকে গ্রেফতার করতে সার্বক্ষণিকভাবে অভিযান পরিচালনা করে থাকে।

২। বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে একটি প্রতারক চক্র ভুয়া প্রশ্নপত্রকে মূল প্রশ্নপত্র বলে চালিয়ে প্রচুর অর্থ হাতিয়ে নেয়। পাবলিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে র‌্যাব এই প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর নজরদারি করে থাকে।

৩। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৮,সিপিসি-১ পটুয়াখালী ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মোঃ রইছ উদ্দিন এর নেতৃত্বে অদ্য ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং ভোর আনুমানিক ০৫.০০ ঘটিকার সময় পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ থানাধীন সুবিদখালী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এসএসসি পরীক্ষার ভূয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসকারী চক্রের ০১ জন সদস্য, এইচ. এম ফাহাদ(১৮), পিতা- হাজী গোলাম মোস্তফা হাওলাদার, সাং- দক্ষিন ঘটকের আন্দুয়া, ইউনিয়ন-৪নং ওয়ার্ড, থানা- মির্জাগঞ্জ, জেলা- পটুয়াখালী‘কে আটক করে। এ সময় আটককৃত ব্যক্তির নিকট থেকে ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস কাজে ব্যবহৃত ০১টি মোবাইল সেট এবং বিপুল পরিমান ভূয়া নমুনা প্রশ্নপত্র জব্দ করা হয়। উল্লেখ্য, অভিযুক্ত এইচ. এম ফাহাদ মোবাইল প্রযুক্তি ব্যবহারে অত্যন্ত দক্ষ। সে অসত্য তথ্য দিয়ে ঋধৎযধস জধযসধহ ও ঔরংধহ গধযসঁফ নামক দুইটি ভূয়া ফেসবুক এ্যাকাউন্ট খুলে। উক্ত ফেসবুক আইডি এবং ম্যাসেঞ্জার এর মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষাসহ বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র অর্থের বিনিময়ে সরবরাহ করার নিমিত্তে অনলাইন ভিত্তিক বেশ কয়েকটি ফেসবুক গ্রুপে প্রচারনা চালায়। অভিযুক্ত আসামী ফেসবুকের মাধ্যমে চলমান এসএসসি পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র সরবরাহ করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে অনেকের নিকট হতে বিপুল পরিমান অর্থ হাতিয়ে নেয়। আটককৃত আসামীকে পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়।