দুই হাজারে দ্রুত মুমিনুল

চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্টে সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। অনবদ্য এক শতকে দলকে দারুণ অবস্থানে নিয়ে গিয়েছেন মুমিনুল হক। ১৭৫ রানের অপরাজিত ইনিংসটি খেলার পথে মুমিনুল পেরিয়ে গেছেন দুই হাজার রানের মাইলফলক। বাংলাদেশের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি ঢুকেছেন দুই হাজারের ক্লাবে।

মাইলফলকটা পাঁচজনের পরে ছুঁলেও দুই হাজার রানে মুমিনুল পৌঁছেছেন সবচেয়ে দ্রুতগতিতে। এই টেস্ট নিয়ে ২৬তমবারের মতো সাদা পোশাকে নামলেন বাংলাদেশের হয়ে। ৪৭ ইনিংসেই পার হয়ে গেলেন দুই হাজার রানের ঘর। টেস্টে পাঁচ শতক আর ১২ অর্ধশতকে মুমিনুলের বর্তমান রান ২,০১৫ রান। গড় ৪৭.৯৭ আর সর্বোচ্চ রানটা এই মাঠেই ২০১৩ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে, ১৮৩।

ওয়ানডেতে তো সুযোগটা মিলছিলই না, হাথুরুসিংয়ের অধীনে যত দিন ছিলেন, তত দিন অবহেলা সয়েছেন টেস্টের সাদা পোশাকেও। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে বাদ পড়েছিলেন টেস্ট সিরিজ থেকে। অনেক নাটকের পর ফিরে এসেছিলেন অবশ্য সেই সিরিজের দলে। এর আগে শততম টেস্টের দলেও ছিলেন না এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। টেস্টে সেই এখন মুমিনুলই বাংলাদেশের হয়ে ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।

তামিম ইকবাল রয়েছেন টেস্টে সবচেয়ে কম ইনিংসে খেলে দুই হাজার ছোঁয়ার দৌড়ে দ্বিতীয় অবস্থানে। ৫৩ ইনিংস খেলে তামিম ছুঁয়েছিলেন দুই হাজার রানের মাইলফলক। হাবিবুল বাশার এ তালিকায় তৃতীয় (৫৮ ইনিংস)। তার পরেই রয়েছেন সাকিব (৫৮ ইনিংস)। মুশফিকের লেগেছিল ৬৭ ইনিংস। তবে সবচেয়ে ধীরগতিতে দুই হাজার রানের ঘর ছোঁয়া ক্রিকেটারের নাম মোহাম্মদ আশরাফুল। ৯১ ইনিংস লেগেছিল আশরাফুলের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.