কমান্ডো ঘেরা বক্সে বসে খেলা দেখবেন প্রধানমন্ত্রী

আজ শুক্রবার কলকাতার ইডেন গার্ডেনে প্রথমবারের মতো দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে নামছে ভারত ও বাংলাদেশ। আর এই ম্যাচের উদ্বোধনী দিনে সাক্ষী হয়ে থাকতেই মাঠে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য কলকাতার ইডেনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে। এরই অংশ হিসেবে কমান্ডো ঘেরা বক্সে বসে টেস্ট ম্যাচটি দেখবেন তিনি।

আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়ামে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর সঙ্গে ঘণ্টা বাজিয়ে ঐতিহাসিক এই টেস্ট ম্যাচটির উদ্বোধন করবেন শেখ হাসিনা।

পরে গোলাপি বলের ঐতিহাসিক ম্যাচটি মাঠে গড়ালে প্রথম সেশন স্টেডিয়ামে বসে উপভোগ করবেন তিনি।

ইন্ডিয়া টাইমসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, জামাত-উল মুজাহিদিন বাংলাদেশসহ একাধিক জঙ্গি সংগঠনের হুমকি থাকায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বাড়তি সতর্ক কলকাতা পুলিশ।

কলকাতা পুলিশের সদর দপ্তর লালবাজারের একটি সূত্রে জানা গেছে, ২২ গজের প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও মিত্র বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য ইডেন গার্ডেন্সে শুক্রবার বিশেষ নিরাপত্তা বলয় থাকছে।

ইডেনে শেখ হাসিনার জন্য পৃথক একটি বক্স তৈরি হচ্ছে। সেটি ঘিরে রাখবেন কমান্ডোরা। ওই বক্সে হাসিনা এবং তার ঘনিষ্ঠরা থাকবেন। বাংলাদেশের একটি নিরাপত্তা দল ইতিমধ্যেই ইডেনের ওই বিশেষ সুরক্ষা ব্যবস্থা দেখে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব একটি নিরাপত্তা দল সেখানে থাকবে।

তবে শহরে থাকাকালীন তার নিরাপত্তার মূল দায়িত্ব কলকাতা পুলিশের। সাম্প্রতিক কালে বিদেশি কোনো রাষ্ট্রপ্রধানের সফরে এমন কঠোর নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়নি।

পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের একটি সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশের জঙ্গি সংগঠন জামাত-উল-মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি) যে এ রাজ্যে সক্রিয়, তার প্রমাণ অতীতে কয়েক বার মিলেছে। জেএমবির কয়েকজন ধরাও পড়েছে। তাই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় সামান্যতম ফাঁকও রাখতে চায় না পুলিশ। সে কারণেই নিরাপত্তার এত কড়াকড়ি।

শুক্রবার ইডেনে প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলতে নামছে ভারত ও বাংলাদেশ। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গোলাপী বলের ঐতিহাসিক এ টেস্ট ম্যাচটি দেখার জন্য শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানান। তবে পূর্ব নির্ধারিত ব্যস্ততার কারণে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কলকাতায় শেখ হাসিনার সঙ্গে যোগ দেবেন না