জলঢাকায় আলু বাছাইয়ের নতুন মেশিনগাড়ি আবিস্কার করলেন জমসেদ আলী

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের চৌড়াঙ্গী বাজারের মা- বাবার দোয়া ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ দোকানে আলু বাছাইয়ের গ্রেড মেশিনগাড়ি আবিস্কার করেছেন।এই মেশিনগাড়িটি এক পলক দেখার জন্য লোকেরা দূর দূরান্তো থেকে আসছেন।সরেজমিনে গিয়ে শুক্রবার বিকেলে জানাগেছে,ধর্মপাল ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের খচিমাথা হাজীপাড়া এলাকার মৃত্যঃ আব্দার আলীর ছেলে মোঃ জমসেদ আলী (৩৫) তিনি আলু বাছাই করা এই মেশিনগাড়িটি আবিস্কার করেন।এ ব্যাপারে তার সাথে কথা হলে বলেন, আমি নওগাঁয় গিয়ে ধান মারাই মেশিনগাড়ি ও ভূট্টা মারাই মেশিনগাড়ি বানানোর কাজ শিখেছি এবং এই কাজ শিখেছি আমি নিজের গ্রাম এলাকায় চৌড়াঙ্গী বাজারে মা- বাবার দোয়া ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ এর দোকান দেই। এ দোকানে ধান মারাই মেশিনগাড়ি ও ভূট্টা মারাই মেশিনগাড়ির পাশাপাশি আলু বাছাইয়ের মেশিনগাড়ি আমি নিজেই আবিস্কার করেছি। বর্তমানে এ উপজেলায় আমি প্রথম আলু বাছাই করার মেশিনগাড়ি আবিস্কার করি।এই গ্রেড মেশিনগাড়ি দিয়ে বড় আলু,ছোট আলু এবং পছন ধরা আলু বাছাই করা যায়।আরো বলেন,আলুর কম্পানীর এক ভাইয়ের কাছে আমি এই আলু বাছাইকরা মেশিন গাড়ির ছবি দেখি।এবং কম্পানীর লোকটি বলেন আপনি কি আলু বাছাইয়ের মেশিন গাড়িটি তৈরী করতে পারবেন জমসেদ আলী বলেন চেষ্টা করলে পারবো।তিনি তখন থেকে ১ বছরের মাথায় ২ টি আলু বাছাই করা মেশিনগাড়ি তৈরী করেন। ১ টি মেশিনগাড়ি কাজ শেষ করেছেন। আর একটি মেশিনগাড়ির কাজ শেষের দিকে বলে জানান।জমসেদ আলীর কাছে মেশিনগাড়িটির নাম জানতে চাইলে বলেন এটি হচ্ছে আলু বাছাইয়ের গ্রেড মেশিন।তার এই অক্লান্ত পরিশ্রম এবং প্রচেষ্টায় জলঢাকায় নতুন একটি আলু বাছাই মেশিনগাড়ি আবিস্কার করলেন যা দিয়ে সুন্দর ভাবে কৃষকেরা আলু বাছাই করতে পারবেন।জমসেদ আলী আরো বলেন,আমার হাড়ভাঙ্গা চেষ্টায় আমি সফল হয়েছি এই মেশিনগাড়িটি তৈরি করে।আর এই মেশিনগাড়ি দিয়ে কৃষকেরা উপকৃত হতে পারবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।শুধু তাই নয় এ মেশিনগাড়িটি আলুর ব্যাবসায়িরাও ব্যাবোহার করতে পারবেন বলে তিনি জানান।