লাগামহীন বৃষ্টিতে বিপর্যয়ের মুখে রাঙ্গাবালীর কৃষক ,

রফিকুল ইসলাম,
রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ
অসময়ে কয়েক দফা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে পটুয়াখালী জেলা রাঙ্গাবালী উপজেলার ৩৫,৫০০’ হেক্টর জমির তরমুজ আলু ও মুগ ডাল খেত। ফল আসার আগ মুহূর্তে এ অবস্থায় চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়েছেন কয়েক হাজার কৃষক। দফায় দফায় বৃষ্টি হওয়ায় খেত থেকে পানি নামছে না। কৃষি অধিদপ্তর ক্ষতি কমাতে কৃষকদের বিভিন্ন পরামর্শ দিচ্ছেন।

একটু বৃষ্টি কমলেই ক্ষেত থেকে পানি সরানোর জন্য নেমে পড়েন তরমুজ ও আলু চাষিরা। রাঙ্গাবালীতে গত কয়েক দিন ধরে দফায় দফায় বৃষ্টি হওয়ায় পানিতে তলিয়ে আছে একরের পর একর তরমুজ ও আলুর ক্ষেত। অধিকাংশ তরমুজের ক্ষেতেই ফল আসতে শুরু করেছিলো।
এ অবস্থায় গত কয়েক মাসের শুধু নিরলস পরিশ্রমই নয় সে সাথে চরম লোকসানের আশংকা করছেন কৃষকরা। অধিকাংশ চাষি ব্যাংক ঋণ নিয়ে তরমুজ চাষ করেন।
এদিকে ক্ষতি কমাতে দ্রুত পানি অপসরণের পরামর্শের পাশাপাশি সরকারি সহায়তার চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে জানালেন রাঙ্গাবালীর উপ-সহকারী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃজাফর।

রাঙ্গাবালী উপজেল চরমোন্তাজ ইউনিয়নের কৃষক মোঃ শহিদুল হাওলাদার বলেন এ বছর উপজেলায় সাড়ে ৩৫ হাজার হেক্টর জমিতে প্রায় ৬ হাজার কৃষক তরমুজ, আলু, মুগডাল চাষ করেছেন। প্রতি হেক্টর তরমুজ চাষে এখন পর্যন্ত কৃষকদের প্রায় সারে তিন থেকে ৪ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে আলু চাষেও খরচ লাগামহিন।