রাজাকার-যুদ্ধাপরাধী বিজয়ী হলে সংসদে ঢুকতে দেবো না: শাজাহান খান

সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আহ্বায়ক ও নৌমন্ত্রী শাজাহান খান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে ভোট না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘আমরা রাজাকারদের বিজয়ী হতে দেবো না। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একজন রাজাকার, যুদ্ধাপরাধীও যদি বিজয়ী হন তাহলে তাকে আমরা সংসদে ঢুকতে দেবো না।’ নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির পক্ষে তরুণদের ভোট চেয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম চ্যালেঞ্জ যুদ্ধাপরাধী রাজাকারদের দেশ থেকে নির্মূল করা। সেজন্য আমাদের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে ১৪ দলের প্রার্থীদের ভোট দিতে হবে।’
রবিবার (১৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবাগে সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধ সংসদ ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘বিজয় মঞ্চ’ -এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্ব নিয়ে সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘বাস, ট্রেন, বিমান দক্ষ চালকের হাতে থাকলে নিরাপদ থাকে। চালক ভালো না হলে রাষ্ট্র নিরাপদ থাকে না। তারা (জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট) কী চায়? তারা দেশকে পাকিস্তান বানাতে চায়।’ ড. কামাল হোসেনের ভীমরতি ধরেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বয়স হলে মানুষের ভীমরতি ধরে। তার বয়স আশির ওপরে। তিনি কখন কী বলেন, আমরা জানি না।’

বিজয় মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

ড. কামাল হোসেনের সমালোচনা করে শাজাহান খান বলেন, শেখ হাসিনার মতো একজন স্বচ্ছ রাজনীতিবিদকে পরাজিত করতে উঠেপড়ে লেগেছেন তিনি। যখন ২০ দল রণে ভঙ্গ দিয়েছে, তখন তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন ড. কামাল। তিনি বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে রাজনীতি করেছেন। তিনি একজন বিজ্ঞ, অভিজ্ঞ মানুষ। তার রাজনৈতিক চরিত্র সম্পর্কে আমি কিছু বলতে চাই না। বৃদ্ধ বয়সে মানুষের ভীমরতি ধরে। আশির ওপর তার বয়স হবে। এই লোক কখন কী বলেন, না বলেন, আমরা জানি না। সাংবাদিকদেরও ধমক দিয়ে বলেছেন, ‘খামোশ’ জামায়াতের বিরুদ্ধে কথা বলা যাবে না। তিনি বলেছিলেন, রাজাকার সঙ্গে আঁতাত করবেন না। কিন্তু তিনি সাংবাদিকদের ধমক দিয়ে বলেছেন ‘খামোশ’ রাজাকার নিয়ে কথা বলা যাবে না।’
ঐক্যফ্রন্টকে খিঁচুড়ি উল্লেখ করে নৌমন্ত্রী বলেন, ‘ তারা কী যেন ঐক্যফ্রন্ট গড়ে তুলেছেন, এর আবশ্যকতা কী? রাজাকারদের নিয়ে ঐক্যফ্রন্ট গড়ে তুলেছেন। খিঁচুড়ি এক-দুই দিন ভালো লাগে, প্রত্যেক দিন ভালো লাগে না। মানুষ এই খিঁচুড়ি মার্কা রাজনৈতিক দলকে ভোট না দিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট দেবে।’
বিজয় মঞ্চের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। এছাড়া অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ, সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী।