মাশরাফিপত্নী সুমি ভোট চেয়ে যা বললেন

নড়াইল-২ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ব্যস্ত থাকায় ভোটের প্রচারে এতদিন নামতে পারেননি বাংলাদেশ ক্রিকেটের এই প্রাণভ্রমরা।

মাশরাফি প্রচারে না থাকলেও তার পক্ষে গণসংযোগ ও নির্বাচনী কার্যক্রম থেমে নেই।স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন তার পক্ষে একাট্টা।

মাশরাফির আত্মীয় স্বজনরাও ক্রিকেটের এই বরপুত্রের জন্য কাজ করছেন।এই তালিকায় নাম লিখিয়েছেন মাশরাফিপত্নী সুমনা হক সুমি। তবে সুমি সরাসরি এখনও প্রচারে নামেননি।

স্বামীর পক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভোট চাইছেন সুমি।শুক্রবার লোহাগড়ার জয়পুর ইউনিয়নের জেসিজি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত উঠান বৈঠকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভোট চান তিনি।এসময় সুমি ঢাকার নিজ বাসায় ছিলেন।

সুমনা হক ভোট চাইতে গিয়ে প্রথমে উপস্থিত সবার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। পরে বলেন, ‘ আপনাদের সবার প্রিয় মাশরাফি আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন। ওই নির্বাচনে আপনারা তাঁকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করুন।’

এ সময় এক নারী সুমনাকে বলেন, ‘আপনারা লোহাগড়ার দিকে খেয়াল রাখবেন।’ সুমনা এর জবাবে বলেন, ‘মাশরাফি নড়াইল ও লোহাগড়া আলাদা করে দেখেন না। আর আমি তো লোহাগড়ার-ই মেয়ে।’ এ সময় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন উপস্থিত নারী-পুরুষরা।

রেহানা পারভীন নামে এক ভোটার বলেন, ‘মাশরাফিকে সরাসরি দেখতে না পারলেও টেলিভিশনে দেখেছি। আপনাকেও স্ত্রীকে দেখলাম। খুব ভালো লাগছে।আপনাদের দু’জনকে সরাসরি দেখতে চাই।’ এসময় লুনা সম্মতিসূচক জবাব দেন।

মাশরাফির বাড়ি নড়াইল শহরে। স্ত্রীর বাবার গ্রামের বাড়ি লোহাগড়ার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের দেবী গ্রামে।

স্থানীয়রা সুমিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেখে ও তার সঙ্গে কথা বলতে পেরে খুশি হয়েছেন বলে জানান।

উঠান বৈঠকে বক্তব্য রাখেন জয়পুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ মশিউর রহমান, জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মাশরাফির স্ত্রীর বড় বোন সঞ্চিতা হক রিক্তা ও তার স্বামী টিপু সুলতান, মেজ বোন সঞ্জিবা হক রিপা ও তার স্বামী নূর আলম শিহাব, নড়াইল পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক, লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক প্রমুখ।