শিক্ষকদের পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রতিনিয়ত জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, শিক্ষকরা হচ্ছেন মানুষ গড়ার কারিগর। প্রতিনিয়ত আমাদের জ্ঞান বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে। শিক্ষকদের এ পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের ও প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিতে হবে।

মঙ্গলবার জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের আয়োজিত অনলাইন আলোচনা সভায় এ কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এ সময় মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গণমুখী ও কারিগরি শিক্ষায় সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছিলেন। আর আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন ম্যানিফেস্টোতে সবার জন্য শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির অঙ্গিকার ছিল। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন অর্থাভাবে কেউ শিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হয়।

শিক্ষকের দায়িত্বের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষকরা হচ্ছে মানুষ গড়ার কারিগর। শুধু শ্রেণিকক্ষে পাঠদানে সীমাবদ্ধ না থেকে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সফট স্কিল অর্জনে দিকনির্দেশনা দিতে হবে।

শিক্ষার্থীদের বিশ্ব নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, তাদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি তাদের যোগাযোগে দক্ষ, সমস্যা সমাধানে দক্ষ, সততা, নিষ্ঠা পরম সহিষ্ণুতা প্রভৃতি বিষয়ে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকার কারিকুলাম পরিবর্তন, শিক্ষক প্রশিক্ষণ ও শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতার উপর গুরুত্বারোপ করছে।

দীপু মনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা দর্শন ছিল গণমুখী ও কর্মমুখী। তিনি কারিগরি শিক্ষায় সর্বাধিক গুরুত্ব দিতেন। আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন মেনিফেস্টোতে সবার জন্য শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির অঙ্গীকার ছিল। বঙ্গবন্ধু চাইতেন অর্থাভাবে যেন কোনো ব্যক্তি শিক্ষার সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হয়।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বলতেন সুস্থ সমাজ নির্মাণে শিক্ষায় বিনিয়োগের চেয়ে শ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ আর নেই। তিনি শিক্ষায় জাতীয় উৎপাদনের শতকরা চার শতাংশ বিনিয়োগের কথা বলেছিলেন।