চীনকে ধ্বংস করতে স্পাইস-২০০০ বোমার মজুদ বাড়াচ্ছে ভারত

লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারত-চীন উত্তেজনা চরমে উঠেছে। এরই মধ্যে লাদাখে সামরিক সরঞ্জাম মজুদ করেছে দেশ দুটি।

টি-৯০ ট্যাঙ্ক ও আকাশ মিসাইল মোতায়েন করেছে ভারত। এমনকি চীনের গতিবিধি খেয়াল করে এ মাসেই ফ্রান্স থেকে নিয়ে আসা হচ্ছে ছয়টি রাফালে যুদ্ধবিমান।

পাশাপাশি ইসরায়েলে তৈরি আরও স্পাইস-২০০০ বোমা কেনার পরিকল্পনা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

ভারতের হাতে রয়েছে স্পাইস-২০০০ বোমা। সেই সংখ্যা আরও বাড়াতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার। ২০১৯ সালে এই স্পাইস-২০০০ বোমার আঘাতেই বালাকোটে পাকিস্তানি জঙ্গি শিবির গুঁড়িয়ে দিয়েছিল ভারতের বিমান বাহিনী। যে কোনো উন্নত যুদ্ধবিমান থেকে নিক্ষেপ করা যায় এই বোমা।

ভারতের সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ৭০ কিলোমিটার দূরের কোনো লক্ষ্যবস্তুকে নিখুঁত নিশানায় আঘাত হানতে পারে স্পাইস-২০০০।

এর যে উন্নত সংস্করণ তৈরি হয়েছে, তা বাঙ্কার ও শক্তিশালী কোনো আস্তানা গুঁডিয়ে দিতে পারে। সংবাদ সংস্থা এএনআই বলছে, ভারতের বিমান বাহিনীর হাতে এমনিতেই স্পাইস-২০০০ বোমা রয়েছে। তার পরেও আরও বোমা মজুদ করতে চাইছে সেনাবাহিনী।

উল্লেখ্য, বালাকোট বিমান হামলায় যে স্পাইস-২০০০ বোমা ব্যবহার করা হয়েছিল, তা কোনো বিল্ডিং ভেদ করে ভেতরে বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে।

সম্প্রতি জরুরি অবস্থার জন্য সেনাবাহিনীকে কিছু ক্ষমতা দিয়েছে মোদী সরকার। ওই ক্ষমতার বলে পাঁচশ কোটি টাকার মধ্যে যে কোনো অস্ত্র কিনতে পারবে প্রতিরক্ষা বাহিনী।