করোনা বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে লিফলেট বিতরন করেছে পটুয়া খেলাঘর আসর

রাকিবুল ইসলাম তনু
পটুয়াখালী প্রতিনিধি, পটুয়াখালী শহরের বিভিন্ন স্থানে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় খেলাঘরের নির্দেশে লিফলেট বিতরন করেছে পটুয়া খেলাঘর আসরের কর্মী সংগঠকেরা।
আজ মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় শহরের বিভিন্ন স্থানে পটুয়া খেলাঘরের কর্মীরা লিফলেট বিতরন করেছেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন খেলাঘর জাতীয় পরিষদের সদস্য ও পটুয়াখালী জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদ প্রিন্স, পটুয়া খেলাঘর আসরের সাধারন সম্পাদক সুজয় চক্রবর্তী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপ্নীল দাস,সহ-দপ্তর সম্পাদক বিবেক কর,সহ-প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান সাব্বির,খেলাঘর কর্মী রাকিবুল ইসলাম তনু,আকাশ দাস প্রমুখ।
এ বিষয়ে সাধারণ সম্পাদক সুজয় চক্রবর্তী বলেন,
খেলাঘরের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এখন অব্দি খেলাঘর দেশের সর্বোচ্চ খারাপ দুর্যোগময় সময়েও মানুষের পাশে থেকেছেন। আগামীতেও থাকবেন।করোনা ভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকেই আমরা জনসচেতনতামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত করে আছি, এছাড়া গরীব অসহায় মানুষের দ্বারে দ্বারে আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী খাদ্য উপহার নিয়ে হাজির হয়েছি।
যতদিন দেশের এই সংকটময় সময় চলবে ততোদিন আমরা মানুষের পাশে, দেশের পাশে থাকবো।
এ বিষয়ে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ বলেন,
মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আমাদের পথচলা।এই করোনা মহামারী আমাদের কাছে একটি যুদ্ধের থেকে কম নয়। এই যুদ্ধে আমরা খেলাঘরের ভাই-বোনদের নিয়ে সবসময়ই মানুষের পাশে ছিলাম আছি থাকবো।
এ বিষয়ে সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপ্নীল দাস বলেন,
মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখি আমরা খেলাঘর।
খেলাঘর শুধুই একটি সংগঠন নয় এটি একটি আন্দোলনের নাম। ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায় ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে খেলাঘরের ভুমিকা ছিলো অতুলনীয়।
তেমনি আজকেও একটি যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে আমরা যাচ্ছি। আজকেও খেলাঘর মানুষের পাশে রয়েছে।
পটুয়াখালীতে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে আমরা মাস্ক বিতরন,স্প্রে করন,খাদ্য সহায়তা প্রদান করে আসছি।
পটুয়াখালীতে বহু সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন নামে বসে আছে কোনো কাজে তাদের দেখা যায়না বললেই চলে।
আমার আহবান থাকবে সকলে সকলের যায়গা থেকে এগিয়ে আসুন। সাংস্কৃতিক কর্মীদের শুধুই গান – বাজনা করলে চলবে না। এই দুঃসময়ে যার যার সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে থাকার অনুরোধ করছি।