রাস্তার কালভার্ট এখন মরণফাঁদ

পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার-
নীলগঞ্জ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের সুলতানগঞ্জ থেকে নবাবগঞ্জে যাতায়াত সংযোগ সড়কটির উপর বিগত কয়েক বছর আগে একটি কালভার্ট নির্মাণ করা হয়।কালভার্ট নির্মাণ সামগ্রী ত্রুটির কারণে উপরের ঢালাই ছাদ ভেঙে ভেতরে ঢুকে যায়। বিগত কয়েক মাস যাবত এটি এভাবে ভাঙ্গা রয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে কালভার্ট এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। যেকোনো সময় ঘটছে দুর্ঘটনা
রাস্তাটি কাঁচা হওয়ার কারণে বর্ষায় গাড়ি না চললেও শুকনা সিজনে এ রাস্তাটি দিয়ে প্রচুর লোক বাংলা বাজার খেয়াঘাট যাতায়াত করে। যা কালভার্ট ভাঙ্গার কারণে এখন অসম্ভব হয়ে পড়ছে।এলাকাবাসী জানান এই কালভার্টটি দিয়ে দুপাশের পানি অপসারণ করা হয় কালভার্টটি ভাঙ্গার কারণে পানি অপসারণ হলেও রাস্তাটি এখন দুই খন্ডে বিভক্ত হয়ে চলাচল অসুবিধা হচ্ছে এবং মাঝেমধ্যেই দিনে এবং রাত্রে ঘটে ছোটখাটো দুর্ঘটনা। এলাকাবাসী আরও জানান এই রাস্তা দিয়ে নবাবগঞ্জ সুলতানগঞ্জ এবং নীলগঞ্জএই তিনটি গ্রামের প্রচুর লোক যাতায়াত করে।রাস্তাটির শেষমাথায় বাংলা বাজার খেয়াঘাট হওয়ার কারণে মধুখালী গামী প্রচুর যাত্রী ওই রাস্তা থেকে যাতায়াত করে। বর্ষার সময় এই তিনটি গ্রামের লোক এবং খেয়াঘাট গামী যাত্রীদের প্রচণ্ড কাদার কারণে চরম বিপদে পড়তে হয়। বর্ষার সময় রোগী পরিবহন করতে গিয়ে পড়তে হয় মারাত্মক বিপদে। কারণ রাস্তাটির দু’পাশে তিনটি গ্রামের যে জনসাধারণ বসবাস করে তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পৌর শহরে যাতায়াত করার একমাত্র রাস্তা এটি যা বর্ষায় একদম চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়ে। তাই রাস্তার ওই কালভার্টটি সংস্কারসহ রাস্তাটি যাতে পাকা করে উল্লেখিত তিনটি গ্রামের জনসাধারণ সহ রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী সমস্ত যাত্রীদের দুঃখ কষ্ট লাঘব করা হয় এমনটাই দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।