মির্জাগঞ্জে জমি জমা নিয়ে হামলায় তরুণী আহত: ঘর ভাঙচুর ।

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে জমি জমা নিয়ে বিরোধের জেরে মোঃ জাহাঙ্গীর মুন্সির ঘর ১০ থেকে ১২ জন লোক নিয়ে ভাংচুর করে এ নিয়ে প্রতিপক্ষরা ও তার প্রতিপক্ষের হামলায় তার মেয়ে মোসাঃ জেবুননেছা (১৫)গুরুতর আহত হয়।

শনিবার (২ মে)দুপুরের দিকে মির্জাগঞ্জ উপজেলার সুবিদখালী বাজারের ঋষিবাড়ি রোডে এ হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

জানাযায়, মোঃ জাহাঙ্গীর মুন্সির সঙ্গে আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ছৈলাবুনিয়া গ্রামের মোঃ জলিল মল্লিক, আমড়াগাছিয়া গ্রামের মোঃসোহাগ খান, ও রিয়াজ খান, সুবিদখালী কামারওলার রুলআমিন মৃধা মধ্যে দীর্ঘ দিন যাবৎ ঋষি বাড়ি জাহাঙ্গীর মুন্সির সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিল।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা রত আহত মোসাঃ জেবুন নেছা বলেন, দুপুরের দিকে ঋষিবাড়ি নামক স্থানে আমাদের বসবাসরত ঘরের পাশে আমাদেরই একটি টিনশেটের ঘর জোরপূর্বক ভেঙে দখলের চেষ্টা করে, আমার ভাই ও বাবা মা সহ আমি বাঁধা প্রদান করিলে জলিল মল্লিক, সোহাগ খান ও রহুলআমিন মৃধা আমাকে দায়ের উল্টো দিক দিয়ে গাড়ে ও পিঠে আঘাত করে এবং বাবাকে মারধর করে।
এব্যাপারে মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে ও আমি মিথ্যা বলিনি বিডি ও রেকড সহ কারে আছে বলে জাহাঙ্গীর মুন্সি জানান।

মির্জাগঞ্জ থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, জমিটি নিয়ে বহুদিন ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছিল। জাহাঙ্গীর বিরোধী জমতি কাজ করছিল এবং অপর পক্ষ তাতে বাঁধা দেওয়াতে এঘটনা ঘটে।অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।