বাউফলে কিশোরের হাতে কলেজছাত্র খুন।।

পটুয়াখালীর বাউফলে এক কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আহত হয়েছে আরও দু’জন।

শনিবার মধ্যরাতে উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নের শিবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রেদোয়ান সিকদার কালিশুরী ডিগ্রী কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

ঘাতক ইমরান কালিশুরী এসএ ইনষ্টিটিউশনের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শনিবার রাতে একই বাড়ির আলমের ছেলে ইমরান ধারালো অস্ত্র নিয়ে রেদোয়ানের ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় রেদোয়ান ছাড়াও তার দুই ভাই আবদুল্লাহ ও ফয়সাল ঘুমিয়ে ছিলেন। ঘুমের মধ্যে ইমরান ধারালো অস্ত্র দিয়ে ৩ ভাইকে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে জখম করে। দ্রুত ৩ ভাইকে উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে পর রেদোয়ানের মৃত্যু হয়। অপর দুই ভাই আবদুল্লাহ ও ফয়সালকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সম্প্রতি তুচ্ছ ঘটনায় ইমরানের মায়ের সঙ্গে রেদোয়ানের ভাবীর ঝগড়া হয়। ওই ঘটনার জের ধরে ইমরান ৩ ভাইকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করতে পারে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারণা করছে। ঘটনার পর ঘাতক ইমরান পালিয়ে যায়। তবে পুলিশ ইমরানের মা সাহিদা বেগমকে আটক করেছে।

বাউফল থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, রোববার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। পূর্ব বিরোধের জের ধরে এ নির্মম হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে নিশ্চিত হয়েছি। আমরা ঘাতকের মা ইমরানকে গ্রেফতার করেছি। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।